Banyan tree in Jhenidah, Bangladesh – 1

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে রয়েছে এশিয়া মহাদেশের বৃহত্তম প্রাচীন বটগাছ। প্রতিদিন দূর-দূরান্ত থেকে অসংখ্য মানুষ দেখতে আসে দু'শ বছরের পুরনো এ বটগাছটি। সুইতলা মল্লিকপুরের বটগাছ নামে বিশেষভাবে পরিচিত গাছটি ১১ একর জমি জুড়ে দাঁড়িয়ে আছে। তবে অযতœ অবহেলা ও রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে ঐতিহ্যবাহী এ বটগাছটি এখন ধ্বংস হতে চলেছে। ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলা শহর থেকে ১২ কিলোমিটার পূর্বে মালিয়াট ইউনিয়নের বেথুলী মৌজায় সুইতলা মল্লিকপুরে এশিয়া মহাদেশের বৃহত্তম বটগাছটির অবস্থান। ২৫০ থেকে ৩০০ ফুট উচ্চতায় ফাঁকা মাঠের মধ্যে প্রায় দু'শ বছরের পুরনো এ বটগাছটি একের পর এক ঝুরি ছেড়ে বিরাট আকার ধারণ করে। ১১ একর জমির উপরে বর্তমানে বটগাছটি খণ্ডখণ্ড হয়ে ৫২ টি বট গাছে রূপ নিয়েছে। বটগাছটির দক্ষিণ-পূর্ব পাশ দিয়ে পাকা সড়ক নির্মাণের ফলে গাছটির বিস্তার বাঁধাগ্রস্থ হচ্ছে। বিশেষ করে ঝুরি বা ব' ছাড়তে পারছে না। প্রতিনিয়ত কাটা হচ্ছে গাছের ডালপালা। ফলে ১৯৮৪ সালে বিবিসির জরিপে এশিয়া মহাদেশের বৃহত্তম খ্যাত এ বটগাছটি রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে অযতœ অবহেলায় বিলীন হতে চলেছে। বটগাছটির ঐতিহাসিক গুরুত্ব বিবেচনা করে ও পর্যটকদের সুবিধার্থে এখানে ১৯৯০ সালে সরকারীভাবে একটি রেষ্ট হাউজ নির্মাণ করা হয়। রক্ষনাবেক্ষণ না করায় রেষ্ট হাউজের জানালা দরজা চুরি হয়ে গেছে। ফলে দেশ বিদেশ থেকে আসা পর্যটকদের পড়তে হচ্ছে দুর্ভোগে। নোট: যদি আপনি ভিডিওটি পছন্দ করেন, আপনার ইউটিউব প্লেলিষ্টে রাখুন। অনুগ্রহ করে ডাউনলোড করে আপনার চ্যানেলে পোষ্ট করবেন না। যদি ভিডিওটি শেয়ার করতে চান তাহলে এমবেড করে বা লিংক কপি করে আপনার ওয়েব সাইটে রাখুন। অনুগ্রহ করে ডুপ্লিকেট কপি করা থেকে বিরত থাকুন। আপনার সৎ সাহায্য নতুন নতুন ভিডিও তৈরীতে এই চ্যানেলকে সাহায্য করবে। ধন্যবাদ।